Technical Care BD https://www.technicalcarebd.com/2021/08/covid-19-vaccine-registration-bangladesh-online.html

অনলাইনে করোনা টিকার আবেদন | করোনা টিকা নিবন্ধন আবেদন

অনলাইনে করোনা টিকা আবেদন | অনলাইনে করোনা টিকা — আজকের এই আর্টিকেলে আপনাদের সঙ্গে চলমান কোভিড-১৯ অর্থাৎ করোনা ভাইরাসের টিকা পেতে অনলাইনে করোনার টিকার আবেদন করার পদ্ধতি নিয়ে আলোচনা করবো। এই আর্টিকেলটি পড়ে আপনি নিজেই আপনার হাতে থাকা স্মার্টফোনের মাধ্যমে নিজের এবং পরিবার সহ যে কারোর জন্য করোনার টিকা নিবন্ধন করতে পারবেন। এবং পাশাপাশি কে কে এই করোনা ভাইরাসের টিকার নিবন্ধন ও এবং কারা কারা করোনার টিকা গ্রহণ করতে পারবেন সে সকল বিষয়সমূহ নিয়ে এই পোস্টে বিস্তারিত আলোচনা করবো।

অনলাইনে করোনা টিকার আবেদন | করোনা টিকা নিবন্ধন আবেদন

অনলাইনে ঘরে বসেই করোনা টিকার আবেদন করুন 

২০২০ সালে সারাবিশ্ব জুড়ে দেখা দেয় মহামারি কোভিড-১৯ বা করোনা ভাইরাস। করোনা ভাইরাস সর্ব প্রথম চিনে দেখা দেয়। পরবর্তীতে তা ধীরে ধীরে বিস্তার লাভ করে সারাবিশ্বে। আমাদের দেশেও করোনা ভাইরাসের প্রভাব/বিস্তার মারাত্মক ভাবে পড়েছে। প্রতিনিয়ত হাজার হাজার মানুষ করোনা ভাইরাসে আক্রান্ত হচ্ছে এবং প্রতিদিন শত শত মানুষ এই ভাইরাসে আক্রান্ত হয়ে মারাও যাচ্ছে। করোনা ভাইরাস পরিস্থিতি থেকে বাঁচার জন্য সকলেই চায় করোনা ভাইরাসের টিকা গ্রহণ করতে। 

আপনাদের মাঝে অনেকেই আছেন যারা করোনা ভাইরাসের টিকার জন্য আবেদন করতে পারছেন না অথবা কারা বা কিভাবে করোনার টিকা দেয়া হবে সে বিষয়টি সম্পর্কে জানেন না। আজকের এই আর্টিকেলে করোনা ভাইরাসের টকার নিবন্ধন সে বিষয়ে সম্পূর্ণ আলোচনা করা হবে। আমি আঁশা করি আপনি এই অনলাইনে করোনা ভাইরাসের টিকার আবেদন আর্টিকেলটি পড়ে করোনার ভাইরাসের টিকা নিয়ে আপনার সকল ধরনের প্রশ্নের সঠিক উত্তর পেয়ে যাবেন।

করোনার টিকার আবেদন কি কি লাগে

১. ভোটার আইডি কার্ড
২. সচল মোবাইল নাম্বার
৩. বর্তমান অ্যাড্রেস (যে ঠিকানায় টিকা নিতে চান)
৪. স্মার্টফোন অথবা কম্পিউটার (করোনার টিকার আবেদন করার জন্যে) 

বর্তমান সময়ে যাদের ভোটার আইডি কার্ড এবং উপযুক্ত বয়স হয়েছে কেবলমাত্র তারাই অনলাইনের মাধ্যমে করোনার টিকার জন্যে আবেদন করতে পারবেন। (এখন অনলাইনে করোনার টিকার আবেদন করার জন্য ন্যূনত্বম বয়স করা হয়েছে ২৫ বছর)। কিছু দিনের মাঝে আঁশা করি আমাদের দেশের সকল মানুষ অনন্যা ডকুমেন্টস প্রদর্শন করে অনলাইনে করোনার টিকার আবেদন করতে পারবেন। (অনলাইনে করোনা ভাইরাসের টিকার আবেদন সম্পর্কে কোনো ধরনের আপডেট আসলে অবশ্যই আপনাদেরকে এই ওয়েবসাইটের মাধ্যমে অবগত করা হবে।

অনলাইনের মাধ্যমে কিভাবে করোনার টিকার আবেদন করবো | করোনা টিকা রেজিষ্ট্রেশন কিভাবে করব

(১) প্রথমে এই ওয়েবসাইটে ভিজিট করুন বা গুগল প্লে স্টোরে Surokkha এই অ্যাপটি আপনার ফোনে ডাউনলোড করুন।
(২) করোনা ভ্যাকসিনের জন্যে নিবন্ধন এই অপশনটিতে ক্লিক করুন।
(৪) স্টেপ-১ আপনার জাতীয় পরিচয়পত্র নম্বর ও জন্ম তারিখ লিখুন।
(৫) স্টেপ-২ সঠিকভাবে ক্যাপচা কোড বসানোর যাচাই করুন বাটনে ক্লিক করুন। ক্লিক করার পরে আবেদনকারীর নাম চলে আসবে সেটা ঠিক আছে কি-না দেখে নিন। 
(৬) স্টেপ-৩ আপনার একটি সচল মোবাইল নাম্বার প্রদান করুন। (এই নাম্বারে মেসেজের মাধ্যমে করোনার টিকা নেয়ার তারিখ এবং স্থান জানানো হবে)। 
(৮) স্টেপ-৬ পেশা নির্বাচন করবেন। (কৃষক/শিক্ষক/অবসরপ্রাপ্ত/সাংবাদিক)
(৯) স্টেপ-৭ বর্তমান ঠিকানা সিলেক্ট করুন। (এই ঠিকানায় নিকটস্থ স্বাস্থ্য কম্পেক্সে করোনার টিকা দেওয়া হবে)। এখানে বিভাগ, জেলা, উপজেলা, ইউনিয়ন, ওয়ার্ড, গ্রাম সঠিকভাবে দিতে হবে।
(১০) স্টেপ-৮ তার একটু নিচেই আরেকটি অপশন দেখতে পাবেন। যে কেন্দ্রে আপনি করোনার ভাইরাসের টিকা নিতে ইচ্ছুক সে জায়গায় ক্লিক করুন। তারপর আপনার দেওয়া ঠিকানায় যতগুলি স্বাস্থ্য কমপ্লেক্স রয়েছে তার নাম দেখানো হবে। আপনি যে কেন্দ্র হতে করোনার টিকা নিতে চান সেই কেন্দ্রটি নির্বাচন করুন।
(১১) স্টেপ-৯ সংরক্ষন বাটনে ক্লিক করুন। 
(১২) আপনার দেওয়া মোবাইল নাম্বারে একটি ওটিপি (ওয়ান টাইম পাসওয়ার্ড) ভেরিফিকেশন কোড যাবে তা লিখে দিবেন এবং সম্পন্ন করুন অপশনে ক্লিক করে দিবেন।
(১৩) ব্যাস আপনার অনলাইনে করোনার টিকার আবেদন সঠিকভাবে সম্পন্ন হয়েছে।

অনলাইনে করোনার টিকার আবেদন করার পরে আরও কিছু কাজ বাকি থেকে যায়। তারমধ্যে একটি হচ্ছে টিকা কার্ড সংগ্রহ করা। এই টিকা কার্ডটি আবেদন করার পরে আপনি অনলাইন থেকে সহজেই ডাউনলোড করতে পারবেন। ডাউনলোড করার পরে আপনাকে সেই টিকা কার্ডটিকে প্রিন্ট করে রাখতে হবে। কারন, এই প্রিন্ট কপি সঙ্গে নিয়ে আপনাকে করোনা ভাইরাসের টিকা নিতে হবে। এটি আপনি যেকোন সময়ে ডাউনলোড এবং প্রিন্ট করতে পারবেন। তবে হ্যাঁ, আমার মতে অনলাইনে করোনা টিকার আবেদন করার পরে ডাউনলোড এবং প্রিন্ট করে নিলেই উত্তম।

ডাউনলোড তো আপনি নিজেই করে নিতে পারবেন! প্রিন্ট করার জন্য কোনো কম্পিউটারের দোকান থেকে প্রিন্ট আউট করতে হবে। যদি আপনার কাছে প্রিন্টার থেকে থাকে তবে আপনিও খুবই সহজেই এটি প্রিন্ট করে নিতে পারবেন। 

কিভাবে টিকা কার্ড করবেন

১) surokkha.gov.bd এই ওয়েবসাইটে ভিজিট করুন।
২) টিকা কার্ড অপশনে ক্লিক করুন।
৩) স্টেপ-১ জাতীয় পরিচয়পত্রের নম্বর দিন এবং জন্ম তারিখ দিন।
৪) স্টেপ-২ নিচে থাকা ক্যাপচা কোড সঠিকভাবে বসিয়ে দিন।
৫) স্টেপ-৩ যাচাই করুন এই অপশনে ক্লিক করুন। যাচাই করুন এখানে ক্লিক করার পরে আপনার ফোনে পূর্বের মতো আবার কোড/ওটিপি (অন টাইম পাসওয়ার্ড) পাঠানো হবে।
৬) স্টেপ-৪ উক্ত কোডটি টাইপ করে ভ্যাকসিন কার্ড ডাউনলোড সেখানে ক্লিক করুন।
৭) স্টেপ-৫ ভ্যাকসিন কার্ডটি আপনাকে দেখানো হবে।
৮) স্টেপ-৬ ভ্যাকসিন কার্ড ডাউনলোড এখানে ক্লিক করলে আপনার স্মার্টফোনে/কম্পিউটারে আপনার কার্ডটি ডাউনলোড হয়ে যাবে।

এইভাবে Surokkha অ্যাপ হতে আপনি টিকা কার্ড সহজেই ডাউনলোড করে নিতে পারবেন। তারপর আপনি যেকোন প্রিন্টার বা দোকান থেকে এই ডাউনলোড করা ফাইলটিকে প্রিন্ট করে রাখবেন।

কারা কারা টিকা নিতে পারবে না

এই বিষয়টি সম্পর্কে বিস্তারিত জানতে আপনি সরাসরি surokkha.gov.bd ওয়েবসাইটে ভিজিট করুন। এটি একটি বাংলাদেশের সরকারি ওয়েবসাইট। 

করোনা টিকা সনদ/সার্টিফিকেট সংগ্রহ

আপনি যে করোনা ভাইরাসের টিকা নিছেন তার প্রমাণ সাপেক্ষে আপনাকে টিকা সনদ প্রদান করা হবে। ২ ডোজ টিকা নেয়ার পরে অনলাইন থেকে আপনাকে টিকা সনদ ডাউনলোড করে প্রিন্ট আউট করে সংরক্ষন করতে পারবেন। কেউ যদি আপনার কাছে টিকা নেয়ার প্রমান চায় তবে এই ডকুমেন্ট দেখাতে পারবেন। 

সতর্কতা

১. আবেদন করার সময়ে আপনি যে মোবাইল নম্বরটি ব্যবহার করবেন সেই ফোন নাম্বারটি সবসময় চালু রাখবেন।
২. সঠিক তথ্য দিয়ে করোনার টিকার আবেদন করবেন।
৩. করোনা টিকার আবেদন করার পরে টিকা কার্ডটিকে ডাউনলোড এবং প্রিন্ট আউট করে রেখে দিবেন।

কোভিড-১৯ নিয়ে আরও তথ্য

১। জাতীয় কল সেন্টার (National Call Center)- 333
২। স্বাস্থ্য বাতায়নঃ 16263
৩। আইইডিসিআর (IEEDCR)- 10655
৪। কোভিড-১৯ টেলি হেলথঃ ০৯৬৬৬৭৭৭২২২

আজকের আর্টিকেল এই পর্যন্তই। যদি আপনার কাছে এই আর্টিকেলটি ভালো লাগে তবে বন্ধুদের সাথে শেয়ার করুন। নিয়মিত এই ধরনের দরকারি আর্টিকেল পেতে আমাদের ওয়েবসাইটটি নিয়মিত ভিজিট করুন।

অন্যদের সাথে শেয়ার করুন

0 Comments

দয়া করে নীতিমালা মেনে মন্তব্য করুন ??

নটিফিকেশন ও নোটিশ এরিয়া