Technical Care BD https://www.technicalcarebd.com/2021/05/best-photo-editing-app-for-android-2021.html

ছবি এডিট সফটওয়্যার ২০২১ | মোবাইল দিয়ে ছবি এডিট করার সফটওয়্যার

ছবি এডিটিং সফটওয়্যার — ভিডিও এডিটিং ও ছবির কাজগুলি আগে শুধুমাত্র কম্পিউটারে করাই সম্ভব ছিল। কিন্তু বর্তমানে আর সেইদিন নেই। স্মার্টফোনের ব্যাবহারের চাহিদা এবং স্মার্টফোনের কাজের পরিধি দিন দিন বৃদ্ধি হতেই চলছে। আপনার হাতে থাকা স্মার্টফোন ব্যবহার করে ছবি এডিটিং এর মতো কাজগুলো করতে পারবেন সহজেই। স্মার্টফোনের মধ্যে সবথেকে জনপ্রিয় অপারেটিং সিস্টেম (ওএস) হলো এন্ড্রয়েড। এন্ড্রয়েড স্মার্টফোনের জন্য রয়েছে লাখ লাখ অ্যাপস। গুগল প্লে স্টোরে থেকে যদি আপনি ছবি এডিট সফটওয়্যার লিখে সার্চ করলে তাহলে আপনার সামনে হয়তো হাজার হাজার ছবি এডিট করার অ্যাপ চলে আসবে। 

ছবি এডিট সফটওয়্যার ২০২১

কিন্ত এইসকল অ্যাপগুলোর মধ্য সবগুলি অ্যাপ কিন্ত ভালোমানের ছবি এডিট সফটওয়্যার না। এতবেশি সফটওয়্যারের মধ্যে খুব সামান্য সংখ্যক সফটওয়্যার রয়েছে যেগুলো খুব ভালোমানের যেসকল অ্যাপ ব্যবহার করে প্রফেশনালি ছবি এডিট করা যায়। আর এতবেশি ছবি এডিট অ্যাপের মধ্যে আপনার পক্ষে সেরা ছবি এডিট সফটওয়্যার বেছে নেওয়াটা খুবই কঠিন কাজ। তাই আমরা আজকের এই আর্টিকেলে আলোচনা করবো মোবাইল দিয়ে ছবি এডিট করার সফটওয়্যার বা মোবাইল দিয়ে ছবি এডিট সফটওয়্যার ২০২১ অথবা সেরা ১০টি এন্ড্রয়েড ছবি এডিট সফটওয়্যার ২০২১ নিয়ে।

ছবি এডিট সফটওয়্যার ২০২১

১.Afterlight ছবি এডিট সফটওয়্যার

Afterlight এই ছবি এডিট করার অ্যাপের সাইজ মাত্র ৩৬ মেগাবাইট। এই ছবি এডিট করার অ্যাপ এখন পর্যন্ত গুগল প্লে স্টোর থেকে ১০ মিলিয়ন বারেরও বেশি ডাউনলোড করা হয়েছে ও ৪.০ স্টার রেটিং এবং ৬০,০০০ প্লাস রিভিউ রয়েছে। Afterlight এই ছবি এডিট করার অ্যাপের স্পেসালাটি হলো এটির সাহায্যে আপনি প্রকৃতির বা Nature ছবিতে খুব সুন্দর সুন্দর ইফেক্ট দিতে পারবেন। 

যেমন- নদী, সাগর, পাহাড়-পর্বত, বাগান, বন ইত্যাদি। এই ধরনের ছবি যেখানে লাইট কম-বেশি, কালার কন্ট্রোল প্রচুর এডজাস্ট মেন্ট সহ বিশেষ করে লাইট কন্ট্রোল করার অনেক গুলো টুল আছে। যেগুলোর সাহায্যে আপনি ছবিতে খুবই সুন্দর সুন্দর ইফেক্ট দিতে পারবেন। ডাউনলোড করুন এখান থেকে

২.Comics and Cartoon Maker | মোবাইল দিয়ে ছবি এডিট

আঁশা করি আপনি নাম শুনেই বুঝতে পারছেন যে এই অ্যাপটি কি ধরনের। এই ছবি এডিট করার অ্যাপ এর সাইজ শুধুমাত্র ১৩ মেগাবাইট। এই ছবি এডিট করার অ্যাপ এখন পর্যন্ত গুগল প্লে স্টোর থেকে ১০ মিলিয়ন প্লাস এর চেয়েও বেশি বার ডাউনলোড করা হয়েছে এবং এই অ্যাপের ৪.৪ স্টার রেটিং ৮০০০০ হাজার রিভিউ রয়েছে। এই অ্যাপ ব্যবহার করার মাধ্যমে আপনি ইমেজকে বিভিন্ন রকমের কার্টনের রুপ দিতে পারবেন। ছবির উপরের অংশে বিভিন্ন ধরণের কমেন্ট লিখতে পারবেন এছাড়াও ছবিতে বিভিন্ন ধরণের সেপ ব্যবহার করতে পারবেন। তাছাড়াও ইমেজে বিভিন্ন রকমের স্টিকার লাগাতে পারবেন। ডাউনলোড করুন এখানে ক্লিক করে

৩. Enlighten Photofox | ছবি কালার করার অ্যাপস

Enlighten Photofox খুবই সুন্দর একটা মোবাইল দিয়ে ফটো এডিটিং অ্যাপ। এই ছবি এডিটিং অ্যাপ এর সাইজ শুধুমাত্র ৫৫ মেগাবাইট। এই অ্যাপ এখন পর্যন্ত গুগল প্লে স্টোর থেকে ১০০ হাজারের বেশি বার ডাউনলোড করা হয়েছে এবং ৩.৮ স্টার রেটিং ৬৭১টি রিভিউ রয়েছে। এই অ্যাপটি আপনি গুগল প্লে স্টোর থেকে সম্পূর্ণ বিনামূল্যে ব্যবহার করতে পারবেন। এই অ্যাপ ছবি এডিটিং করার জন্য অনেকগুলো ফিচার রয়েছে। অ্যাপটি ওপেন করে যখন এডিটিং মুডে চলে যাবেন সেই সময় বেশ কিছু অপশন দেখতে পারবেন–

Transform - এই ফিচারের মাধ্যমে আপনি ছবি ক্রপ, ছবি বিভিন্ন সাইজে সাইজ করে নিতে পারবেন।
Filter - এই ফিচারের মাধ্যমে আপনি এক ক্লিকেই ছবির ফিল্টার চেঞ্জ করতে পারবেন।
Adjust - এই ফিচারের আন্ডারে আরও অনেক গুলি ফিচার আছে যেমন, Contrust, Brightness, Shadows, Saturation, ইত্যাদি আরও এমন অনেক অপশন পাবেন। যেগুলো দিয়ে ছবি লাইট বাড়িয়ে নিতে পারবেন।
Overlay - এই অপশন ব্যবহার করে আপনি ছবির উপর বিভিন্ন ধরনের ইফেক্ট দিতে পারবেন।
Sticker - এই ছবি এডিট করার অ্যাপ ব্যবহার করে আপনি ৪৫টির মতো স্টিকার পেয়ে যাবেন। যেগুলি আপনি ছবির মধ্যে ব্যবহার করতে পারবেন।
Frame - এই অ্যাপে আপনি চমৎকার ৪ টি ফ্রেম পেয়ে যাবেন। যেগুলি শুধুমাত্র একটি ক্লিকে আপনার ইমেজের মধ্যে ব্যবহার করতে পারবেন।
Text - আপনার ছবির যেকোনো জায়গাতে যেকোনো লেখা বসাইতে পারবেন।
Text Desine - এই অপশনের মাধ্যমে ফন্টকে বিভিন্ন ধরণের স্টাইলিশ করে তুলতে পারবেন।
Brush - স্ক্রিনের উপরে টাচ করে ইচ্ছামতো যেকোনো কালার করতে পারবেন।
Focus - ইমেজকে নির্দিষ্ট একটা যায়গাতে ফোকাস করতে পারবেন।

ডাউনলোড করার জন্য এখানে ক্লিক করুন

৪.VSCO: Photo & Video Editor | ছবি কাজ করার সফটওয়্যার

VSCO অ্যাপের প্রধান ফিচার হ'ল এর ফিল্টার। এই অ্যাপের সাইজ শুধুমাত্র ৫২ মেগাবাইট। এই ছবি এডিটিং অ্যাপ এখন পর্যন্ত গুগল প্লে স্টোর থেকে ১০০ মিলিয়ন এর বেশি বার ডাউনলোড করা হয়েছে এবং এই অ্যাপের ৪.১ স্টার রেটিং ও ১ মিলিয়ন রিভিউ রয়েছে। এই অ্যাপটি ব্যবহার করে আপনি কোনো রকম এডিটিং ছাড়াই এক ক্লিক করে ছবির রং ও ছবির রূপ পরিবর্তন করে দিতে পারবেন। এর জন্যে এই অ্যাপের অনেকগুলি ফিল্টার অপশন রয়েছে। 

এছাড়াও VSCO APP থেকে ছবি ম্যানুয়ালি ভাবে এডিট করার জন্য বেশ কিছু টুল আপনি পেয়ে যাবেন যেমন - VIDEO EDITOR, VSCO MONTAGE. advanced photo editing tools like HSL and Split Tone, VSCO’s preset library with over 200+ presets এই অ্যাপটি ডাউনলোড করুন এখান থেকে

৫. PicsArt Photo Editor: Pic Video & Collage Maker

PicsArt অত্যন্ত পাওয়ারফুল একটি এন্ড্রয়েড ফটো এডিটিং অ্যাপ। এই অ্যাপের সাইজ শুধুমাত্র ৩৬ মেগাবাইট। এই ছবি এডিট সফটওয়্যার এখন পর্যন্ত গুগল প্লে স্টোর থেকে ৫০০ মিলিয়ন এরও বেশি বার ডাউনলোড করা হয়েছে এবং ৪.২ স্টার রেটিং ও ১০ মিলিয়ন রিভিউ রয়েছে। এই অ্যাপটির সম্পর্কে নতুন করে আলোচনা করা কিছু নেই। 

এই ছবি এডিট সফটওয়্যার ব্যক্তিগতভাবে আমার কাছে খুবি পছন্দের একটি অ্যাপ। এই অ্যাপের মধ্যে রয়েছে প্রচুর ফিচার যেমন– Effects,Tools, Cutout, Beatify, Lense Flare, Add Photo, Text, Border, Frame, Fit, Brushes, Mask, Draw, Shape Mask, Callout. অ্যাপটি ওপেন করে এডিট মুডে চলে গেলে আপনি উক্ত অপশনগুলো দেখতে পারবেন। এই গুলোর প্রত্যেকটার আন্ডারে আরো সকল ফিচার পাবেন।

এই অ্যাপের সাহয্যে আপনি যেকোন ধরণের ব্যানার এবং পোস্টার বানাতে পারবেন এবং লোগো তৈরি করে নিতে পারবেন। কাজ করার সময় কোন অংশ অনাকাঙ্খিত ভাবে ডিলিট হয়ে গেলে বা কোন সমস্যা হলে সেটি আনডো ও রিডো করতে পারবেন। আরও পাবেন 100+ ফন্টের লাইব্রেরি। আপনার ডিজাইনের কাজগুলোকে PicsArt এ রেজিস্ট্রেশন করে ফাইল সেভ করে নিতে পারবেন। এই অ্যাপ ডাউন করুন এখানে ক্লিক করে

৬.AirBrush: Easy Photo Editor | সেরা ১০টি ছবি এডিট সফটওয়্যার ২০২১

AirBrush এয়ারব্রাশ হচ্ছে একটি কুল টাইপ এন্ড্রয়েড ফটো এডিটিং সফটওয়্যার। এই অ্যাপের সাইজ শুধুমাত্র ৬২ মেগাবাইট। এই অ্যাপ PIXOCIAL TECHNOLOGY (SINGAPORE) PZTE LTD কোম্পানি দ্বারা ডেভেলপ করা হয়েছে। এটি এখন পর্যন্ত গুগল প্লে স্টোর থেকে ৫০ মিলিয়ন এর বেশি বার ডাউনলোড করা হয়েছে এবং ৪.৭ স্টার রেটিং সহ ১ মিলিয়ন এর বেশি রিভিউ রয়েছে।

এই AirBrueh অ্যাপ মেয়েদের কাছে খুবি পছন্দের একটি ফটো এডিটিং অ্যাপ। যেকোনো ছবির চেহারার উপরে যদি দাগ অথবা পিম্পল থাকে তবে তা খুব সহজেই পরিষ্কার করে নেয়া যায়। চেহারা এবং চুলের কালার চেঞ্জ করার জন্য খুব পারাফেক্ট এই অ্যাপটি। এই অ্যাপ ব্যবহার করে খুব সহজেই এই কাজ গুলো করতে পারবেন। 

যদি আপনার চেহারা নিয়ে খুব চিন্তিত থাকেন তবে এই অ্যাপটি আপনার জন্য হতে পারে সেরা চয়েজ। এছাড়াও এই অ্যাপের মধ্যে আরও বেশ কিছু ফিচার আপনি পাবেন যেমন – make Whiten Teeth and Brighten Eyes, Blemish and Pimple Remover, Real-Time, Editing Technology, Radiant Filters. Perfect Skin- edit tan your skin, Natural এই অ্যাপটি ডাউনলোড করতে এখানে ক্লিক করুন

৭.PixaMotion Loop – ছবি এডিট করার সেরা অ্যাপ

PixaMotion পিক্সামোসন একটি এনিমেটেড এন্ড্রয়েড ফটো এডিটিং অ্যাপ। এই অ্যাপের সাইজ শুধুমাত্র ২৩ মেগাবাইট। অ্যাপটি Imagix AI Privet Limited এই কোম্পানি দ্বারা ডেভেলপ করা হয়েছে। এটি এখন পর্যন্ত গুগল প্লে স্টোর থেকে ১ মিলিয়ন এর বেশি বার ডাউনলোড করা হয়েছে এবং ৪.৪ স্টার রেটিং এবং ৫৭ হাজার রিভিউ রয়েছে। 

PixaMotion অ্যাপের সাহায্য আপনি লাইভ ফটো, ওয়ালপেপার এবং মুভিং ব্যাকগ্রাউন্ডস ও থিম বিভিন্ন ধরনের লাইভ অ্যানিমেশন ইফেক্টের কাজ নিমিষেই খুব সহজে করতে পারবেন। এই অ্যাপ একটি শক্তিশালী ভিজুয়াল ছবি এডিটর অ্যাপ যা অন্যান্য যেকোনো অ্যাপ অফার করে না। এছাড়াও আপনি ছবিতে সাউন্ড যুক্ত করতে পারবেন এবং ক্যামেরা ইফেক্টও দেখতে পারবেন। অ্যাপটি ডাউনলোড করুন এখানে ক্লিক করে

৮.Photo editor pro

Photo editor pro ফটো এডিটর প্রো একটি লাইট ওয়েট এন্ড্রয়েড ফটো এডিটিং সফটওয়্যার। এই অ্যাপের সাইজ শুধুমাত্র ১৪ মেগাবাইট। এই অ্যাপ InShot Inc কোম্পানি ডেভেলপ করেছে। এই অ্যাপটি এখন পর্যন্ত গুগল প্লে স্টোর থেকে ১০০ মিলিয়ন এরও বেশি বার ডাউনলোড করা হয়েছে ও ৪.৮ স্টার রেটিং এবং ১ মিলিয়ন এর বেশি রিভিউ রয়েছে।

এই অ্যাপের প্রধান বৈশিষ্ট্য হ'ল এর মধ্যে প্রচুর পরিমাণে ফিল্টার রয়েছে। এখানে আপনি ৬০টির বেশী ফিল্টার রয়েছে, যার সাহায্য ছবিকে একটা অন্য রকম রূপ দিতে পারবেন। আপনি যদি ছবিতে ইফেক্ট, ফিল্টার এবং স্টিকার বেশি ব্যবহার করে থাকেন তাহলে এই ছবি এডিটিং অ্যাপটি আপনি ব্যবহার করতে পারেন। বিভিন্ন সোশ্যাল মিডিয়া পোস্টে ইমেজ ব্যবহার করার জন্য এই অ্যাপটি খুবই কাজের। অ্যাপটি ডাউনলোড করতে এখানে ক্লিক করুন

৯.Lightroom বেস্ট ছবি এডিট করার অ্যাপস

কম্পিউটারের সবচেয়ে জনপ্রিয় ফটো এডিটিং সফটওয়্যার হচ্ছে – Adobe photoshop. আর Adobe Lightroom হ'ল সেই একি কোম্পানির ছবি এডিটিং মোবাইল অ্যাপ। আমার ব্যক্তিগতভাবে Lightroom ফটো এডিটিং অ্যাপটিকে অনেক ভালো লাগে। এই ফটো এডিটিং অ্যাপটি অনেক জনপ্রিয়। এই অ্যাপের স্পেশাল কিছু ফিচার এর কারণে এই অ্যাপটি অন্য সকল ফটো এডিটিং অ্যাপ এর থেকে আলাদা। 

যেমন– অন্ধকারে তোলা যেকোন ছবিকে সহজে আলোকিত করতে পারে, এই অ্যাপে মাঝে অনেকগুলি ফিল্টার রয়েছে যেগুলির মাধ্যমে খুব সহজেই ছবির কালার পরিবর্তন, স্টাইল এবং লুক চেঞ্জ করা যায়। এছাড়াও আছে অটো মুড ফিচার। যার দ্বারা একটি ক্লিক করেই ছবির রুপ পরিবর্তন করতে পারবেন।

Lightroom অ্যাপের আরো একটি বিশেষত্ব হ'ল Pre-set ফিল্টার। এটি ব্যবহার করে সহজেই ইউটিউবের জন্যে থাম্বনেইল ও ফেসবুকে পোস্ট এর জন্যে পিকচার তৈরি করতে পারবেন। প্রি-সেট ছবির মধ্যে ম্যানুয়ালি এডিট করতে চান সেটির জন্য এখানে কনট্রাস্ট, লাইট এক্সপোজার ইত্যাদি বিভিন্ন ধরনের অপশন রয়েছে যেগুলো আপনি ম্যানুয়ালি পরিবর্তন এবং এডিট করতে পারবেন। Lightroom অ্যাপ ডাউনলোড করতে এখানে ক্লিক করুন

১০.Snapseed বেস্ট ছবি এডিট করার অ্যাপস

Snapseed স্নাপসিড হচ্ছে একটি খুবই জনপ্রিয় ছবি এডিট করার অ্যাপ এই অ্যাপ এখন পর্যন্ত গুগল প্লে স্টোর থেকে ১০০ মিলিয়ন এর বেশি বার ডাউনলোড করা হয়েছে ও ৪.৩ স্টার রেটিং এবং প্রায় ১ মিলিয়ন এর বেশি রিভিউ রয়েছে। এই অ্যাপের ফাইল সাইজ মাত্র ৮৩ মেগাবাইট। Snapseed হচ্ছে একটি প্রফেশনাল ছবি এডিটিং অ্যাপ। এই অ্যাপটি স্বয়ং গুগল কোম্পানি দ্বারা ডেভেলপ করা হয়েছে। এই অ্যাপ হচ্ছে একটি চমৎকার ছবি এডিটিং মোবাইল অ্যাপ। 

এই অ্যাপটি ব্যবহার করে আপনি প্রায় সকল ধরনের কাজ করতে পারবেন। এই অ্যাপের মধ্যে বিভিন্ন রকমের টুলস ও ফিচারস রয়েছে যেমন- Tune image, Glamoure, Selective filter brush, Curves, Face pose, Crop, Lens blur, Face enhance, Frames ইত্যাদি সহ আরও বিভিন্ন রকমের ফিচার আপনি এখানে পেয়ে যাবেন। যেগুলি ব্যবহার করে ছবিকে আপনার মনের মতো করে এডিট করতে পারবেন। ডাউনলোড করুন Snapseed অ্যাপ। 

অন্যদের সাথে শেয়ার করুন

0 Comments

দয়া করে নীতিমালা মেনে মন্তব্য করুন ??

নটিফিকেশন ও নোটিশ এরিয়া