সরকারিভাবে বিদেশ যাওয়ার উপায় ২০২৩

প্রিয় পাঠক আপনারা অনেকেই হয়তো ইউটিউব বা গুগলে সার্চ দিয়ে থাকেন সরকারিভাবে বিদেশ যাওয়ার উপায় গুলো জানতে চান। কিন্তু অনেকেই হয়তো এই বিষয় নিয়ে কনটেন্ট সঠিক বিষয় নিয়ে লেখেনা। আজকে আমি আপনাদের সাথে আলোচনা করব সরকারিভাবে বিদেশ যাওয়ার উপায় ২০২৩।  

সরকারিভাবে বিদেশ যাওয়ার উপায় ২০২৩

পেজ সূচিপত্রঃ সরকারিভাবে বিদেশ যাওয়ার উপায় ২০২৩

আপনারা কি করলে এবং কি কি যোগ্যতা থাকলে সরকারিভাবে বিদেশ যেতে পারবেন তা বিষয় নিয়ে বিস্তারিত আলোচনা করা হবে। আপনারা যারা সরকারিভাবে বিদেশ যাওয়ার উপায় খুজছেন। তারা এই আর্টিকেলটি প্রথম থেকে সম্পূর্ণ পড়ুন। তাহলে আপনারা জানতে পারবেন সরকারিভাবে বিদেশ যাওয়ার উপায়।

ভূমিকাঃ সরকারিভাবে বিদেশ যাওয়ার উপায় ২০২৩

আপনার দক্ষতা দিয়ে আনুষ্ঠানিকভাবে বিদেশে যেতে পারেন। এক্ষেত্রে আপনি যদি আনুষ্ঠানিকভাবে বিদেশে যেতে চান তাহলে আপনার ব্যক্তিগত খরচ অনেক হবে। কারন এখনকার দুনিয়াতে দালালে ভর্তি। আপনি যদি বিদেশ যেতে চান তাহলে আপনাকে দালাল নানা ধরনের লোভ দেখিয়ে আপনার কাছ থেকে মোটা অংকের টাকা হাতিয়ে নেওয়ার চেষ্টা করবে।

তাই আপনারা কোন দালালের কাছে না যে আজকের এই পোস্টটি সম্পূর্ণ পড়ুন তাহলে জানতে পারবেন কিভাবে সরকারিভাবে বিদেশ যাওয়া যায়। বর্তমানে দালাল ছাড়া খুব কম খরচে সরকারি ভাবে বিদেশ যাওয়া যায়। আপনি যদি সরকারিভাবে বিদেশ যেতে চান তাহলে আমাদের এই আর্টিকেলটি সম্পূর্ণ পড়বেন। তাহলে আপনি বুঝতে পারবেন সরকারিভাবে বিদেশ যাওয়ার উপায় ২০২৩।

আরো পড়ুনঃ দালাল ছাড়া বিদেশ যাওয়ার উপায়

সরকারিভাবে বিদেশ যেতে কি কি যোগ্যতা লাগে

সরকারিভাবে বিদেশ যেতে আপনার কি কি যোগ্যতা লাগবে এই পোস্ট থেকে জেনে নিন। তাহলে চলুন জেনে নিই সরকারি ভাবে বিদেশ যেতে যোগ্যতাগুলো কি কি।

১। সরকারিভাবে বিদেশ যাওয়ার জন্য নিবন্ধন করার সময় নিবন্ধন কার্ডের বয়স অবশ্যই ১৮ বছরের উর্ধ্বে হতে হবে।
২। সরকারিভাবে বিদেশ যাওয়ার নিবন্ধন করার জন্য নিবন্ধনকারীর নিজস্ব মোবাইল থাকতে হবে।
নিবন্ধনকারীর মোবাইলে এসএমএস এর মাধ্যমে জানানো হবে।

৩। যেহেতু নিবন্ধনকারীর যোগ্যতা ভিত্তিতে সরকারিভাবে বিদেশ গিয়ে সে কি কাজ করবে তার নির্ধারণ করা হবে।

৪। তাই সরকারিভাবে বিদেশ যাওয়ার জন্য নিবন্ধনের সময় সকল যোগ্যতা ও অভিজ্ঞতা সনদ ডাটা ব্যাংকে প্রদান করতে হবে।

৫। বিদেশে অনেক সময় বিভিন্ন প্রতিষ্ঠান বিভিন্ন কর্মদক্ষতা যোগ্যতা ও অভিজ্ঞতার ভিত্তিতে শ্রমিক বা কর্মী নিয়োগ দেয়। সেজন্য আপনার যোগ্যতা ও কর্মদক্ষতা দেখবে আগে।

৬। এছাড়াও বিদেশে অনেক প্রশিক্ষণ ভিত্তিক কাজের নিয়োগ দিয়ে থাকে যেখানে কাজ করার জন্য আপনার বিভিন্ন প্রশিক্ষণের প্রয়োজন হতে পারে।

সরকারিভাবে বিদেশ যেতে প্রয়োজনীয় কাগজপত্র

আপনি যদি সরকারি ভাবে বিদেশ যেতে চান অবশ্যই কিছু প্রয়োজনীয় কাগজপত্র লাগবে। সেই প্রয়োজনে কাগজপত্র ছাড়া আপনি কখনোই বিদেশ যেতে পারবেন তাই সরকারিভাবে বিদেশ যাওয়ার জন্য কি কি কাগজপত্র লাগবে জেনে নিন। নিম্নে প্রয়োজনীয় কাগজপত্র তালিকা দেয়া হলোঃ

১। পাসপোর্ট
২। চাকুরীর চুক্তিপত্র
৩।একটি ব্যাংক অ্যাকাউন্ট
৪। দূতাবাসের ঠিকানা ও ফোন নম্বর
৫। ভিসা
৬। জনশক্তি  ছাড়পত্র
৭। মেডিকেল রিপোর্ট
৮। টিকিট
৯। টাকা প্রদানের রশিদ ও চুক্তিপত্র ইত্যাদি

সরকারিভাবে বিদেশ যাওয়ার উপায়

আপনি যদি সরকারিভাবে বিদেশ যেতে চান তাহলে আপনাকে ৩ উপায়ে সরকারিভাবে যেতে পারবেন। সেই দিন উপায় গুলো হলো।

১। শ্রমিক হিসাবে
২। চাকরির প্রার্থী হিসাবে
৩। শিক্ষার্থী হিসেবে

শ্রমিক হিসাবে বিদেশ যাওয়ার উপায়

আপনি যদি শ্রমিক হিসাবে বিদেশ যেতে চান তাহলে আপনাকে শ্রমিক নিয়োগের বিভিন্ন পত্রিকায় দিকে খেয়াল রাখতে হবে। বিদেশে বিভিন্ন শিল্পকারখানা ছাড়া অন্যান্য প্রতিষ্ঠান রয়েছে এখানে নিয়মিতভাবে বাংলাদেশ থেকে অন্যান্য দেশে নিয়োগের মাধ্যমে সরকারিভাবে শ্রমিক নেওয়া হয়। এবং সেগুলোর বিষয়ের প্রতি আপনাকে চোখ রাখতে হবে।

চাকরির প্রার্থী হিসেবে বিদেশ যাওয়ার উপায়

আপনি যদি সরকারি ভাবে বিদেশ গিয়ে চাকরি করতে চান সেই ক্ষেত্রে আপনাকে সর্বপ্রথম কোন কোম্পানির সার্কুলার দিয়েছে কিনা সেই বিষয়ের উপর নজর রাখতে হবে। বিভিন্ন বিজ্ঞাপনে আপনাকে সরকারি চাকরির বিজ্ঞাপন দেখানো হয়ে থাকে। এগুলো দেখে আপনি সরকারি ভাবে চাকরির আবেদন করতে পারেন।

শিক্ষার্থী হিসেবে সরকারিভাবে বিদেশে যাওয়ার উপায়

আপনি যদি শিক্ষার্থী হিসেবে সরকারিভাবে বিদায় যেতে চান তাহলে এক্ষেত্রে আপনাকে আপনার মেধা যোগ্যতা বিভিন্ন বিষয়ক পরীক্ষার ফলাফল এর মাধ্যমে নির্বাচন করা হবে। এবং আপনাকে ফ্রী স্কলারশিপ দেওয়ার সুযোগ রয়েছে।

আরো পড়ুনঃ বিদেশে কোন কাজের চাহিদা বেশি

সরকারিভাবে বিদেশ যাওয়ার নিবন্ধন

আপনি যদি সরকারিভাবে বিদেশ যাওয়ার জন্য প্রস্তুত হন তাহলে আপনাকে আগে সরকারি বিদেশ যাওয়ার জন্য নিবন্ধন করতে হবে। সরকারিভাবে বিদেশ যেতে আগ্রহী দক্ষ স্বল্পদক্ষ ও পেশাজীবী নারী পুরুষের নিবন্ধন শুরু হয়েছে। আগ্রহীরা মোবাইল ব্যাংকিং এর মাধ্যমে ২০০ টাকা পাঠিয়ে নিবন্ধন করতে পারবেন।

জনসম্পত্তি জনশক্তি কর্মসংস্থান ও পরিসংখ্যান ব্যুরো এ সংক্রান্ত এক বিক্ষপ্তিতে এ তথ্য জানিয়েছেন। কোনরকম দালাল যারা ৬১ জেলায় নিবন্ধন চালু হচ্ছে। বি এম এইটির বিজ্ঞপ্তিতে বলা হয়েছে সরকার নির্বাচনী ইশতেহার অনুযায়ী বছরে প্রতি উপজেলা থেকে এক হাজার কর্মী বিদেশে পাঠানোর কথা রয়েছে। নিবন্ধনের সময় যোগ্যতা ও অভিজ্ঞতার সনদ ডাটা ব্যাংকে সংযোজন করতে হবে।

তবে ডাটা ব্যাংক নিবন্ধন কোনভাবে নিবন্ধনকারীর বিদেশে যাওয়া নিশ্চিত করবে না। এই নিবন্ধনের মেয়াদ হবে দুই বছর তাই এই সময়ের মধ্যে কোন যোগ্যতা বা অভিজ্ঞতা অর্জিত হলে ডাটা ব্যাংকের সংযোজনের সুযোগ রয়েছে নিবন্ধনকারী যোগ্যতা বৃদ্ধিতে সরকারের কাজের ব্যবস্থা করবে।

আরো পড়ুনঃ বিদেশ যাওয়ার জন্য কোন ব্যাংক লোন দেয়

শেষ কথাঃ সরকারি ভাবে বিদেশ যাওয়ার উপায় ২০২৩

আমরা প্রায় পোস্টের শেষ পর্যায়ে আপনারা আজকের এই আর্টিকেল থাকে জানতে পারলেন সরকারিভাবে বিদেশ যাওয়ার উপায় ২০২৩। এটা করি আপনারা এই পোস্টটি সম্পূর্ণ পড়েছেন। আপনি যদি এই পোস্টটি সম্পন্ন করেন তাহলে তবে না আপনি সরকারিভাবে বিদেশ যাওয়ার উপায় জানতে পারবেন। আপনি যদি ভালোভাবে পোস্টটি পড়েন নি তাহলে দূরত্ব ভালো ভাবে মন দিয়ে এই পোস্টটি পড়ুন আপনার কাজে দিবে।

তাহলে আপনি জানতে পারবেন সরকারি ভাবে বিদেশ যাওয়ার উপায় গুলো কি কি। এবং কি করলে সরকারিভাবে বিদেশ যাওয়া যায় তাছাড়া কি কি যোগ্যতা লাগে সরকারিভাবে বিদেশ যাওয়ার জন্য এসব উক্ত বিষয়গুলো নিয়ে আলোচনা করা হয়েছে আজকের এই পোস্টে। এতক্ষণ আমাদের সঙ্গে থাকার জন্য অনেক ধন্যবাদ।

পোষ্ট ক্যাটাগরি: