Technical Care BD https://www.technicalcarebd.com/2021/06/how-to-make-income-online-from-home.html

অনলাইনে ইনকাম করার উপায় ২০২১ | ঘরে বসে ইনকাম করার উপায়

ঘরে বসে ইনকাম করার উপায় — আমাকে অনেকেই প্রশ্ন করে জানতে চাইছেন যে, ভাই ঘরে বসে টাকা আয় করতে চাই? কিন্ত ঘরে বসে কিভাবে টাকা আয় করব এবং অনলাইনে টাকা আয় করার পদ্ধতিগুলো কি কি? তাই আজকের এই পোস্টের মধ্যে আমি আপনাদের এই সকল প্রশ্নের উত্তর এখানে বলে দিচ্ছি। এমনিতেই, আমি পূর্বের বিভিন্ন আর্টিকেলে আপনাদেরকে ইন্টারনেট থেকে টাকা আয় করার বিভিন্ন উপায় সম্পর্কে বলেছি।

তবে হ্যাঁ, আজকের এই আর্টিকেলের মাধ্যমে আমি কেবলমাত্র অনলাইনে ইনকাম করার পদ্ধতিগুলোর সম্পর্কে বলবো যেগুলো অনুসরণ করে আপনি ঘরে বসে টাকা আয় করতে পারবেন এবং এই পদ্ধতিগুলো ঘরে বসে টাকা ইনকাম করার ক্ষেত্রে সেরা ও লাভজনক। আপনি হতে পারেন একজন স্টুডেন্ট, মহিলা বা ফুল টাইম জব করা একজন মানুষ। তবে চিন্তার কোন কারণ নেই, সবাই এই অনলাইনে ইনকাম করার পদ্ধতিগুলো ব্যবহার করে ঘরে বসে অনলাইনে ইনকাম করতে পারবেন।

ঘরে বসে ইনকাম করার উপায়

এমনিতে যদি আপনি ঘরে বসে মোবাইলে টাকা ইনকাম করার উপায় খুঁজছেন, তাহলে সেই সম্পর্কে আমি আগেই পোস্ট করেছি। বর্তমানে করোনাভাইরাস এই জটিল মহামারীর সময় আমরা সকলেই ঘরে বসে আছি। এক্ষেত্রে আমাদের সবার হাতে প্রচুর সময় আছে এবং চাইলেই আমরা সেরা কিছু অনলাইন ইনকামের পদ্ধতি ব্যবহার করে ঘরে বসে থেকে কাজ করে টাকা ইনকাম করতে পারি।

হ্যাঁ ইন্টারনেট থেকে বিভিন্ন রকমের কাজগুলো করে বর্তমানে বিশ্বজুড়ে হাজার হাজার মানুষ লাখ লাখ টাকা ইনকাম করছে। তবে, আপনি কেন বসে থাকবেন তাই এই সুযোগের লাভ নিয়ে আপনিও ঘরে বসে অনলাইনে টাকা ইনকাম করুন এটাই হবে আমার পরামর্শ। ঘরে বসে কাজ করে টাকা আয় করার জন্য আপনার অনেক বেশি ধৈর্য্য ধারণ করতে হবে এবং কিছু সময় দিয়ে সঠিকভাবে কাজ সম্পূর্ণ করতে হবে।

ঘরে বসে টাকা ইনকাম করতে চাই | অনলাইনে ইনকাম করার সেরা পদ্ধতিগুলো কোনটি?

ঘরে বসে টাকা ইনকাম করার জন্য অনলাইনে অনেক পদ্ধতি আছে। তবে অনলাইনে ইনকাম করার জন্য অনেকগুলো উপায়ের মধ্যে আমি শুধুমাত্র সেই সকল উপায়গুলোর বিষয়ে আলোচনা করবো যেগুলোর মাধ্যমে বর্তমানে মানুষ হাজার হাজার টাকা ইনকাম করছেন। অনলাইনে টাকা ইনকাম জন্য আপনাকে সেই সকল কাজ করার জন্যে আপনার প্রয়োজন হবে একটি কম্পিউটার ডেক্সটপ অথবা ল্যাপটপ এবং ইন্টারনেট সংযোগ থাকলেই হবে।

তবে হ্যাঁ, প্রায় কিছু কিছু কাজ আছে যেগুলো আপনি নিজের মোবাইল ফোনের মাধ্যমে করতে পারবেন। তাছাড়া আমি আপনাকে কেবলমাত্র সেই কাজগুলো করার জন্য পরামর্শ দেবো যেগুলোর সঙ্গে জড়িত আপনার জ্ঞান আছে। তা নাহলে, কাজগুলো করার জন্য আপনার রুচি থাকবেনা বা কাজগুলো শেখার জন্য আপনার অনেক সময় লেগে যেতে পারে। তাই, নিজের কাজের প্রতি ইন্টাররেস্ট হিসেবে ঘরে বসে ইনকামের জন্য কাজগুলো করার পরামর্শ আমি দিচ্ছি।

তােহ চলুন, ঘর বসে কাজ করে অনলাইনে টাকা ইনকাম করার কি কি সেরা উপায় আছে এবং কিভাবে ঘরে বসে ইনকাম করা যায়। অনলাইনে ইনকাম করার ২০টি উপায় এবং সেগুলোর তালিকা জেনে নেই।

চলুন, প্রত্যেকটি বিষয় গুলো নিয়ে নিচে বিস্তারিত ভাবে জেনে নেয়া যাক।

আর্টিকেল লিখে টাকা ইনকাম | ঘরে বসে টাকা আয় করতে চাই

আপনি যদি ভালো লেখালেখি করতে পারেন এবং ঘরে বসে থেকে পার্ট-টাইম অথবা ফুল টাইম টাকা আয় করার সহজ উপায় খুঁজছেন, তবে আর্টিকেল রাইটিং এর কাজ আপনার জন্য হবে উত্তম কাজ। বর্তমানে অনেক অনলাইন ব্লগ, ওয়েবসাইট, নিউজ পোর্টাল ইত্যাদি আছে যেখানে কন্টেন্ট লেখার কাজের জন্য লোকেদের দেওয়া হয়। আপনি প্রায় ১০০০ থেকে ২০০০ ওয়ার্ডের একটি ভালো কোয়ালিটির বা ভালোমানের কন্টেন্ট লিখে দিতে পারলে আপনি ৫০০ টাকা থেকে ১০০০ টাকা পর্যন্ত আয় করতে পারবেন।

এই ধরণের আর্টিকেল রাইটিং এর কাজগুলো খোঁজার জন্য আপনাকে বিভিন্ন ব্লগিং এবং কন্টেন্ট রাইটিং এর সঙ্গে জড়িত ফেসবুক পেজগুলোতে যুক্ত হতে হবে। এছাড়াও ইন্টারনেটে সক্রিয় বিভিন্ন অনলাইন নিউজ পোর্টাল সাইট বা ব্লগগুলোর কন্টাক্ট পেজের মাধ্যমে তাদের ইমেইল অ্যাড্রেস সংগ্রহ করে সরাসরি আর্টিকেল রাইটিং এর জন্য খবর নিতে পারবেন। আর আপনি যদি সঠিকভাবে এসইও অপ্টিমাইজ আর্টিকেল লিখতে পারেন, তবে অনলাইনে অনেক বেশি কাজ পাবেন।

আরও পড়ুনঃ অনলাইনে আয় করার সহজ উপায়

সোশ্যাল মিডিয়া ইনফ্লুয়েন্সার | সহজে টাকা ইনকাম বা আয় করার উপায়

সোশ্যাল মিডিইয়া ইনফ্লুয়েন্সার করার মাধ্যমে ঘর বসে কাজ করে অনলাইনে টাকা ইনকাম করার সুযোগ সকলের জন্যেই আছে। বর্তমানে হাজার হাজার মানুষ নিজের জনপ্রিয় সোশ্যাল মিডিয়া পেজ অথবা সোশ্যাল মিডিয়া সাধারণ অ্যাকাউন্টের মাধ্যমে লাখ লাখ টাকা আয় করছেন করছেন ঘরে বসে। আপনি এটাকে ঘরে বসে পার্ট টাইম চাকরি হিসেবে নিয়েও কাজ করতে পারবেন। বর্তমানে অনলাইন ইন্ডাস্ট্রি হচ্ছে এবং প্রোমোশন এক সাংঘাতিক দারুন মাধ্যম।

তাই বর্তমানে প্রায় সকল কোম্পানিগুলো তাদের প্রোডাক্ট এবং সার্ভিসগুলোর অনলাইনে প্রচার (মার্কেটিং) করার ক্ষেত্রে বিভিন্ন সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম ইনফ্লুয়েন্সারদের সাহায্য টাকার বিনিময়ে নিয়ে থাকেন। যদি আপনার নিজের সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম পেজগুলোতে অনেক বেশি ফলোয়ার নিয়ে আসার দক্ষতা থাকে তবে আপনি ঘর বসে কাজ করে বেশ ভালোমানের টাকা ইনকাম করতে পারবেন।

কিভাবে একটি সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম পেজ তৈরি করে সেখানে মানুষের কাছে আকর্ষণীয় কনটেন্ট (ছবি, ভিডিও, টেক্সট ইত্যাদি) পাবলিশ করে নিজের সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম অ্যাকাউন্টের ফলোয়ার বৃদ্ধি করতে পারবেন, সেই বিষয় আপনার জেনে রাখতে হবে। স্বাভাবিক অবস্থায় আপনার সোশ্যাল মিডিয়া পেজের মধ্যে কমপক্ষ্যে ৫ হাজার ফলোয়ার্স থাকলে আপনাকে সোশ্যাল মিডিইয়া ইনফ্লুয়েন্সার ক্যাটাগরিতে ধরা হতে পারে। যদি আপনার অ্যাকাউন্টে একবার ভালো পরিমাণে ফলোয়ার হয়ে গেলে আপনি বিভিন্ন কোম্পানিগুলোর প্রোডাক্টগুলোর পেইড প্রোমোশন অথবা পেইড রিভিউ এবং অ্যাফিলিয়েট মার্কেটিংয়ের মাধ্যমে প্রচুর টাকা আয় করতে পারবেন।

এছাড়াও আপনি যদি একজন ভারতের নাগরিক হয়ে থাকেন অথবা বসবাস করেন তবে সেখান থেকে টাকা আয় করার একটি দারুন সব সুযোগ আছে আপনার জন্য। আপনি Meesho app এর সাহায্য ঘরে থেকে কাজ করে মাসে প্রায় ১৫ হাজার টাকা থেকে ২৫ হাজার টাকা পর্যন্ত পার্ট-টাইম আয় করতে পারবেন।

আরও পড়ুনঃ বিজ্ঞাপন দেখে টাকা ইনকাম

Meesho app | টাকা ইনকাম করার অ্যাপ

Meesho হচ্ছে একটি প্রোডাক্ট রিসেলিং কোম্পানি যেখানে একটি একাউন্ট তৈরি করে যেকেউ তাদের প্রোডাক্টগুলোকে নিজের দামে বিক্রয় করে টাকা আয় করতে পারে। প্রোডাক্টের মধ্যে মূলত কিচেন আইটেমস, ক্লোথিং, ফ্যাশান ইত্যাদি এই রকমের অনেক ক্যাটেগরি আছে। কাস্টমারের দেওয়া অর্ডারের ডেলিভেরি, পেমেন্ট কালেক্ত ইত্যাদি সবগুলো Meesho Company দ্বারা নিয়ন্ত্রণ করা হবে।

আপনাকে কেবলমাত্র ভালো ভালো প্রোডাক্টগুলো সিলেক্ট করে সেগুলোকে বিভিন্ন সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম গুলোতে নিজের লাভ সহকারে দাম লাগিয়ে শেয়ার করে বিক্রি করতে হবে। মনে রাখবেন এই টাকা ইনকাম করার অ্যাপটি শুধুমাত্র ভারতের জন্য প্রযোজ্য।

ব্লগিং | অনলাইনে ইনকাম করার সহজ উপায়

ব্লগিং সব সময় ঘরে বসে টাকা ইনকাম করার সেরা উপায় ছিল এমনকি বর্তমানে আছে। আমার মতোই সারাবিশ্বে হাজার হাজার মানুষ প্রফেশনালি ব্লগিং করে অনলাইনে হাজার হাজার টাকা ইনকাম করছেন। আর সত্যি বলতে, সঠিকভাবে করলে আপনি যদি ব্লগিং করেন তাহলে আপনি যেকোনো সাধারণ চাকরির তুলনায় অনেক বেশি টাকা ইনকাম করতে পারবেন। আমার নজরে ব্লগিং একটি সেরা অনলাইন বিজনেস প্লাটফ্রম। যেটাকে একজন ছাত্র, গৃহিণী, অবসর ব্যাক্তি অর্থাৎ যেকেউ ব্লগিং শুরু করতে পারেন।

বর্তমানে স্কুল এবং কলেজের স্টুডেন্টরা পর্যন্ত ঘরে বসে থেকে ব্লগিং করে প্রতি মাসে হাজার হাজার ডলার ইনকাম করছেন। ব্লগারে যত বেশি আপনি কাজ করবেন ঠিক ততবেশি টাকা ইনকাম করতে পারবেন। তবে, ব্লগিং করার ক্ষেত্রে আপনাকে অনেক বেশি ধৈর্য্য ধরে হাতে কিছু সময় নিয়ে কাজ করার প্রয়োজন হবে। কারণ, একটি ব্লগ থেকে ভালোমানের টাকা ইনকাম করার জন্য সেখানে প্রত্যেক দিন কমপক্ষে ১০০০ হাজার ভিজিটর আসতেই হয়। নয়তোবা ব্লগিং করে ভালোমানের টাকা ইনকাম করা সম্ভব হবে না। আর ভালো পরিমাণে ব্লগে ভিজিটর আসার ক্ষেত্রে প্রায় ৫-৬ মাসের মতো সময় লাগতে পারে।

আরও পড়ুনঃ এসইও (SEO) কি? ব্লগে এসইও কেন দরকার হয়

ইউটিউব চ্যানেল | ঘরে বসে টাকা আয় করার উপায়

ব্লগিং এর মতোই ইউটিউব অবশ্যই একটি প্রফেশনাল বিজনেস মডেল। যা অনলাইনে টাকা ইনকাম করার প্রমাণিত একটি উপায় বা পদ্ধতি। স্টুডেন্ট থেকে শুরু করে বয়স্ক মানুষরাও নিজের একটি ইউটিউব চ্যানেল তৈরি করে এখান থেকে থেকে ইনকাম করছেন। আপনাকে নিজের একটি ইউটিউব চ্যানেল বানিয়ে সেখানে নিয়মিত ভাবে ভিডিও তৈরি করে আপলোড করতে হয়। আপনার নিজের রুচি ও অভিজ্ঞতা হিসেবে যেকোন ধরণের ভিডিও বানিয়ে আপলোড করতে পারবেন।

ধীরে ধীরে যখন আপনার ইউটিউব চ্যানেলে প্রচুর সাবস্ক্রাইবার হতে থাকবে তখন আপনার প্রত্যেক ভিডিওগুলোতে ভিউ বৃদ্ধি পাবে আর আপনি বিভিন্ন মাধ্যমে নিজের ইউটিউব চ্যানেল থেকে টাকা ইনকাম করতে পারবেন। যেমন- গুগল অ্যাডসেন্স, অ্যাফিলিয়েট মার্কেটিং, পেইড প্রোমোশন ইত্যাদি। ব্লগিং এর মতোই ইউটিউবে আপনি এক রাতের মধ্যে বড়লোক হয়ে যেতে পারবেন না। আপনাকে এখানে কিছুটা সময় নিয়ে ধৈর্য্য ধরে নিয়মিত ভিডিও পাবলিশ করতে থাকতেই হবে।

ইউটিউব মনিটাইজেশন অন করে সহজেই নিজের ইউটিউব ভিডিওগুলোতে বিজ্ঞাপন প্রদর্শন করে অনলাইনে টাকা আয় করা সম্ভব। আপনি ঘরে বসে থেকে অথবা যেকোন যায়গা থেকে এই অনলাইন ব্যবসা চালাতে পারবেন। একটি ডেস্কটপ কম্পিউটার বা ল্যাপটপ দিয়ে কাজ করাটা অনেক সুবিধাজনক যদিওবা আপনি চাইলেই নিজের স্মার্টফোন থেকে কাজ করেও ইউটিউব থেকে টাকা আয় করতে পারবেন।

গ্রাফিক্স ডিজাইন | ঘরে বসে মোবাইলে আয় করার উপায়

যদি আপনার মাঝে গ্র্যাফিক্স ডিজাইনিং, লোগো ডিজাইন, বানার ডিজাইন, কার্ড ডিজাইন ইত্যাদি এই ধরনের কাজের দক্ষতা আছে, তাহলে অবশ্যই এর মাধ্যমে টাকা ইনকাম করা সম্ভব। অনলাইনে অনেক ওয়েবসাইট, বিজনেস, সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম, সোশ্যাল মিডিয়া পেজ আছে যারা তাদের অনলাইন পোর্টালগুলোর জন্য বিভিন্ন রকমের গ্রাফিক্স ডিজাইনিং এর কাজ করে নিতে চান।

তাই, আপনি যদি এই গ্রাফিক্স ডিজাইনের কাজে অনেক ভালো অভিজ্ঞতা রাখেন, তবে অবশ্যই কাজটি করেও অনলাইনে টাকা ইনকাম করতে পারবেন। আপনি এই সকল কাজ ঘর বসে একটি ল্যাপটপ বা কম্পিউটারের মাধ্যমে করতে পারবেন। কাজ খোঁজার জন্য আপনি বিভিন্ন জনপ্রিয় ফ্রিলান্সিং মার্কেটপ্লেস বা বিভিন্ন ওয়েবসাইট বা ফেসবুক পেজ গুলোতে গিয়ে কাজ খুঁজে নিতে পারবেন।

আরও পড়ুনঃ ২০২১ সালের সেরা ৭টি ফ্রিল্যান্সিং ওয়েবসাইট

অনলাইন টিউশন | টিউশন করে আয়

করোনাভাইরাসের সংক্রমণের ভয়ের কারণে স্কুল, কলেজ, কোচিং ক্লাসেস ইত্যাদি সকল কিছু বন্ধ করা হয়েছে। তবে এইক্ষেত্রে আমাদের কাছে একটি নতুন করে পার্ট টাইম ব্যবসার সুযোগ হয়ে দাঁড়িয়েছে যা আপনি ঘরে বসে থেকেই করতে পারবেন। আর সেই ব্যবসাটি হচ্ছে ঘরে বসে অনলাইন টিউশন ক্লাস নিয়ে টাকা ইনকাম।

বর্তমানে স্টুডেন্টরা অনলাইনে নিজের মোবাইলফোন থেকে ভিডিও মেসেজিং ও কলিং অ্যাপের মাধ্যমে টিউশন ক্লাসেস করছেন। এইক্ষেত্রে, আপনি চাইলেই সাধারণ ইন্টারনেটের জ্ঞানের সঙ্গে এই ধরণের অনলাইন টিউটর বিজনেস শুরু করতে পারবেন। এইভাবে, আপনি ঘরে বসে থেকে নিজের সুবিধা হিসেবে একাধিক স্টুডেন্টদের অনলাইন ক্লাস নিয়ে টাকা ইনকাম করতে পারবেন। যেহেতু ক্লাস সম্পূর্ণ অনলাইনে নেয়া হচ্ছে, তাই যায়গা নিয়ে কোনো রকম সমস্যাই থাকছেনা। এতে করে আপনি অনেক স্টুডেন্টদের একসঙ্গে ক্লাস করিয়ে নিতে পারবেন।

ওয়েবসাইট ডেভেলপার | অনলাইনে ইনকাম করার উপায়

আপনার যদি ওয়েবসাইট ডিজাইন আন্ড ডেভেলপমেন্ট নিয়ে জ্ঞান, দক্ষতা, অভিজ্ঞতা থাকে, তবে অবশ্যই অন্যদের জন্য ওয়েবসাইট ডেভেলপ করে দিয়ে টাকা ইনকাম করতে পারবেন। আমি অনেক মানুষকে দেখেছি যারা বিভিন্ন রকমের ব্লগ সাইট, বিজনেস পেজ, পোর্টফুলিও ওয়েবসাইট বা ই-কমার্স ওয়েবসাইট তাদের বায়ার বা ক্লায়েন্টদের জন্য তৈরি করে থাকেন। তাই ওয়েবসাইট তৈরি করতে এবং ডিজাইন করতে জানলে এর সঙ্গে জড়িত কাজ আপনি মার্কেটপ্লেসে খুঁজে করতে পারবেন। ফ্রিলান্সিং ওয়েবসাইট গুলোতে গিয়ে বা ফেসবুক পেজের মাধ্যমে অথবা অনলাইন পেইড অ্যাডস চালিয়ে আপনি কাজ খুঁজে করতে পারবেন। আর অনলাইনে ঘরে বসে টাকা ইনকাম করতে পারবেন।

ডিজিটাল মার্কেটিং | টাকা ইনকাম করার সহজ উপায় বাংলাদেশে

অনেক ছোট-বড় কোম্পানি আছে যারা ডিজিটাল মার্কেটিংয়ের মাধ্যমে নিজেদের প্রোডাক্ট, বিজনেস ও ব্র্যান্ডগুলোকে অনলাইনে প্রচার করে থাকেন বা করতে চান। আর এক্ষেত্রে তাদের দরকার হয়ে থাকে ডিজিটাল মার্কেটিং এক্সপার্ট একজন ব্যক্তির। তাই যদি আপনি ডিজিটাল মার্কেটিংয়ের সঙ্গে জড়িত দক্ষতা, অভিজ্ঞতা, জ্ঞান এবং রাখেন তবে অবশই ঘরে বসে বায়ার বা ক্লায়েন্টদের জন্য অনলাইনে মার্কেটিংয়ের কাজ করে অনেক টাকা ইনকাম করতে পারবেন। আর হ্যাঁ মনে রাখবেন যে এই ধরণের অনলাইন মার্কেটিংয়ের কাজ কিন্ত সকলেই করতে পারেনা।

তাই, ডিজিটাল মার্কেটিংয়ের কাজ করে অনেক টাকা আয় করার সুযোগ আছে। ডিজিটাক মার্কেটিংয়ের বিভিন্ন ভাগ আছে যেমন- সোশ্যাল মিডিয়া মার্কেটিং (SMM), ইমেইল মার্কেটিং, কন্টেন্ট রাইটিং, ইউটিউব মার্কেটিং, এসইও ইত্যাদি। আপনার একটি ল্যাপটপ অথবা কম্পিউটার এবং ইন্টারনেট সংযোগ থাকলেই আপনি যেকোনো জায়গা থেকে অথবা ঘরে বসে কাজ করতে পারবেন আর হিউজ পরিমাণে টাকা ইনকাম করতে পারবেন।

আরও পড়ুন: ডিজিটাল মার্কেটিং কি? ডিজিটাল মার্কেটিং কেন করবেন

অনলাইনে সার্ভে করে টাকা ইনকাম করুন

ইন্টারনেটে এমনিতেই অনলাইনে টাকা আয় করার প্রচুর পদ্ধতি অথবা উপায় আছে। আর এই উপায় গুলির মধ্যে একটি সেরা উপায় হচ্ছে “পেইড সার্ভে ওয়েবসাইট” গুলোর মাধ্যমে ইনকাম করা। এরকম অনেক সাইট আছে যেগুলোতে অ্যাকাউন্ট তৈরি করে আপনারা বিভিন্ন ধরনের প্রশ্নের সঠিক অ্যান্সার দিয়ে টাকা ইনকাম করতে পারবেন। পেইড সার্ভেগুলো প্রায় ১০-২০ মিনিট সময় নিয়ে আপনাকে বিভিন্ন প্রোডাক্ট, কোম্পানি অথবা সার্ভিস এর সঙ্গে জড়িত প্রশ্ন করবেন। 

আপনাকে আপনার মতামত গুলো জমা দিতে হবে এবং প্রত্যেক সার্ভে করে প্রায় $.৫০ ডলার থেকে প্রায় $10 ডলার বা তার চেয়েও অধিক টাকা ইনকাম করতে পারবেন। আর হ্যাঁ, পেইড সার্ভে করে আপনি খুব বেশি টাকা ইনকাম করতে পারবেন না। যদিও ঘরে বসে থেকে পার্ট-টাইম টাকা আয় কিছুটা হবে।

অনলাইনে ছবি বিক্রি করুন | অনলাইনে টাকা ইনকাম করার সহজ উপায়

অবশ্যই, ইন্টারনেটে এইরকম অনেক ছবি ওয়েবসাইট আছে যেগুলোতে একাউন্ট বানিয়ে যেকেউ নিজের তোলা ছবিগুলোকে আপলোড করে সেইগুলো বিক্রি করে টাকা ইনকাম করতে পারবেন। এই ধরণের ওয়েবসাইট গুলোকে বলা হয়ে থাকে স্টক ইমেইজ ওয়েবসাইট। যেমন- BigStock, iStock photo, Getty Images, Shutterstock, Adobe Stock ইত্যাদি।

তবে এই সকল ওয়েবসাইট গুলোর মাধ্যমে আপনি কেবলমাত্র সেসকল ছবিগুলোকে বিক্রি করতে পারবেন যেগুলো আপনি নিজেই তুলছেন এবং সেগুলোর কোয়ালিটি অনেক ভালো HD। এছাড়াও, আপনি যতবেশি ইউনিক ইমেজ তুলে আপলোড করবেন সেগুলো বিক্রয় সবার সুযোগ অধিক থাকবে।যদি আপনার কাছে একটি DSLR camera ডিএসএলআর ক্যামেরা আছে এবং আপনি ছবি তুলতে ভালো পারেন, তাহলে অবশ্যই অনলাইনে ছবি বিক্রি করে টাকা ইনকাম করাটা আপনার জন্য লাভজনক সহজ উপায় হতে পারে।

আরও পড়ুনঃ অনলাইনে ছবি বিক্রি করে আয়

ডাটা এন্ট্রি জব | অনলাইন হতে টাকা আয় করার উপায়

ইন্টারনেটে ডাটা এন্ট্রি কাজ করে টাকা ইনকাম করার জন্য আপনি অনেক ডাটা এন্ট্রি ওয়েবসাইট অবশ্যই দেখতে পারবেন। গুগলে অথবা ইউটিউবে বিভিন্ন কন্টেন্ট সার্চ করলেই আপনি প্রচুর পরিমাণে ডাটা এন্ট্রি সাইট দেখতে পারবেন যেগুলোর মাধ্যমে কাজ করে ইনকাম করা সম্ভব। তবে এসকল কাজ আপনি ফুলটাইম অথবা পার্ট-টাইম দুইভাবে করতে পারবেন।

এছাড়াও, ডাটা এট্রি কাজ করার জন্যে আপনার প্রয়োজন হবে ডেক্সটপ কম্পিউটার অথবা ল্যাপটপ কম্পিউটার। যতবেশি সম্ভব ভুলত্রুটি না করে তাড়াতাড়ি ডাটা টাইপ বা ডাটা এন্টি করতে পারলেই এই কাজে লাভ রয়েছে। ডাটা এন্টি কাজ বলতে তা বিভিন্ন রকমের কাজ হতে পারে। যেমন- ক্যাপচা এন্ট্রির কাজ, ট্রান্সলেট, এডিটিং, কপি পেস্ট ইত্যাদি কাজ।

শেষ কথা

আজকের এই আর্টিকেল থেকে জানলাম যে ঘরে বসে থেকে কি কি কাজ করে অনলাইনে টাকা ইনকাম করা সম্ভব। আর্টিকেলের মধ্যে আলোচনা করা অনলাইনে টাকা আয় করার পদ্ধতিগুলো যদি আপনার কাছে পছন্দ হয়, তবে অবশ্যই আর্টিকেলটি আপনার বন্ধুদের সঙ্গে শেয়ার করুন। আঁশা করি যে উপরোক্ত আলোচনা করা অনলাইনে ইনকাম করার পদ্ধতিগুলো আপনাদের কাজে অবশ্যই আসবে। 

অন্যদের সাথে শেয়ার করুন

0 Comments

দয়া করে নীতিমালা মেনে মন্তব্য করুন ??

সর্বশেষ আপডেটেড অফার পেতে চান?

নটিফিকেশন ও নোটিশ এরিয়া