Technical Care BD https://www.technicalcarebd.com/2021/03/best-antivirus-software-for-windows-10.html

২০২১ সালের সেরা ৫টি এন্টিভাইরাস সফটওয়্যার | এন্টিভাইরাস সফটওয়্যার ডাউনলোড

উইন্ডোজ অপারেটিং সিস্টেম যারা ব্যবহার করছেন তাদের কাছে অ্যান্টি-ভাইরাস বা অ্যান্টি-ম্যালওয়্যার প্রোগ্রাম নতুন কোন বিষয় নয়। বরং আপনার সাথে অনেকটাই সুনিবিড় সম্পর্ক রয়েছে।আপনার কম্পিউটার যদি উইন্ডোজ ১০ কিংবা উইন্ডোজ ৮ দারা চালিত হয় তাহলে এর মধ্যে microsoft-এর নিজস্ব ফ্রী এন্টিভাইরাস বা এন্টিম্যালওয়ার প্রোগ্রাম উইন্ডোজ ডিফেন্ডার দেয়া আছে। 

২০২১ সালের সেরা ৫টি এন্টিভাইরাস সফটওয়্যার | এন্টিভাইরাস সফটওয়্যার ডাউনলোড | এন্টিভাইরাস কোনটা ভালো

উইন্ডোজ ডিফেন্ডার নিয়মিতভাবে আপডেট করলে বেশিরভাগ ভাইরাস বা ক্ষতিকর সফটওয়্যার এর কাছ থেকে সুরক্ষিত রাখতে পারবেন আপনার কম্পিউটারটিকে। তাছাড়া বাড়তি নিরাপত্তার জন্য একটি থার্ড পার্টি এন্টিভাইরাস সফটওয়্যার ও ব্যবহার করতে পারেন। অ্যান্টিভাইরাস ব্যবহারে কারো কোনো আপত্তি থাকে না। কেননা মোবাইলের এন্টিভাইরাস মোবাইল এর জন্য বা স্মার্টফোন এর ক্ষতি করলেও তা কম্পিউটার এর জন্য তা বেশ উপকারি।

কেননা কম্পিউটার এর জন্য যেসকল এন্টিভাইরাস তৈরি হয়েছে তাদের নানা ধরনের ফিচার রয়েছে। সেসব বিষয় নিয়ে আজকে জানবো এবং এর সাথে সাথে আপনাদের সামনে নিয়ে আসবো 2021 সালের সেরা কয়েকটি এন্টিভাইরাস সফটওয়্যার। তো চলুন তাহলে আর্টিকেলটি শুরু করা যাক;

প্রথমে আমাদেরকে জানা দরকার আপনি অ্যান্টিভাইরাস যে ব্যবহার করবেন কেনই বা এটি ব্যবহার করবেন। অ্যান্টিভাইরাস কি এমন জিনিস থাকা দরকার এবং আপনারও তা জানা দরকার যার জন্য আপনি এন্টিভাইরাস সফটওয়্যার ইন্সটল করবেন। প্রথমে আপনাকে দেখতে হবে কার্যকারীতার বিষয়টিকে। অ্যান্টিভাইরাস এবং যে কোন ভাইরাস কিংবা ম্যালওয়্যার শনাক্ত করে এবং সার্বক্ষণিক পুলিশের ভূমিকা পালন করে আপনাকে নিরাপত্তা প্রদান করতে তৎপর থাকে। 

এমনকি এগুলো ক্ষতি ওয়েবসাইট এবং সন্দেহজনক লিংক গুলো খুজে বের করে এবং সে গুলোকে মার্ক করে রাখে এবং আপনার কম্পিউটারকে সুরক্ষিত রাখতে সার্বক্ষণিক কাজ করে। অ্যান্টিভাইরাস সফটওয়্যারগুলো ক্ষতিকর প্রোগ্রামের বিরুদ্ধে সুরক্ষা সরবরাহ করতে পারে এবং অপ্রত্যাশিত আচরন পর্যবেক্ষণ করে। আপনার কম্পিউটারে কোন অপ্রত্যাশিত আচরন করলে তার নির্মূলে কাজ করে থাকে। এছাড়া নতুন এবং এখনও শনাক্ত করা যায়নি এমন অনেক ভাইরাস এবং ম্যালওয়ার খোজ করা এন্টিভাইরাস এবং একটি অন্যতম কাজ। 

তাই আপনাকে বেছে নিতে হবে এমন একটি অ্যান্টি ভাইরাস সফটওয়্যার। যা মিথ্যা সুরক্ষার প্রতিশ্রুতি না দিয়ে বরং নিজের সাধ্যমত সেবা সুবিধা সম্ভব আপনাকে প্রদান করবে। 

সিস্টেম রিসোর্স এর পরিমিত ব্যবহার 
আপনি অবশ্যই এমন একটি এন্টিভাইরাস সফটওয়্যার চাইবেন যা আপনার পিসিতে রিসোর্সে কোন সমস্যা তৈরি করবে না। এন্টিভাইরাস ইন্সটল করার পর যদি কোন ওয়েবসাইটে ওপেন হতে তুলনা মুলক বেশি সময় বেশি সময় নেয় ফাইল কপি করতে প্রত্যাশিত সময় এর চেয়ে বেশি সময় নেয়। তবে আপনার উচিত এর বিকল্প প্রোগ্রামের খোঁজ করা। কেননা অনেক সময় আপনার কম্পিউটার স্লো কিংবা হ্যাং করার পেছনে আপনার ব্যবহৃত অ্যান্টিভাইরাস দায়ী থাকবে।ফেক কিংবা ভাইরাসের জর্জরিত অ্যান্টিভাইরাস ব্যবহার থেকে সচেতন থাকবেন। এন্টিভাইরাস অ্যাপস।

মূল্য | এন্টিভাইরাস কোনটা ভালো
টাকা দিয়ে কিনলেই যে সেই আন্টিভাইরাস যথাযথ সুরক্ষা দিতে পারবে এবং ফ্রী এন্টিভাইরাস ব্যবহার করলে তার আপনার জন্য কোন কাজেরই না এটা একদম ভুল ধারণা। আজ আপনাদেরকে যে কয়েকটি অ্যান্টিভাইরাস দেখাবো এগুলো প্রত্যেকটি আপনারা ফ্রিতে ব্যবহার করতে পারবেন। এতে আপনাদের কোন ধরনের টাকা দেয়ার প্রয়োজন নেই। আর তা আপনাদের জন্য যথেষ্ট কার্যকর।এন্টিভাইরাস কোনটা ভালো।

আপনি যদি ব্যক্তিগত কম্পিউটারে অ্যান্টিভাইরাস ইনস্টল করার জন্য একটি অ্যান্টিভাইরাস খুঁজছেন। আজকের এই পোস্টে দেখানো যে কোন একটি ব্যবহার করতে পারবেন। কিন্তু একসাথে কয়েকটি ভুলেও ব্যবহার করবেন না। অনেকে ভাবছেন একটি ব্যবহার করলে যে সেবা পাবো একসাথে কয়েকটি ব্যবহার করলে হয়তো তার চেয়ে বেশি সেবা পাবো। এটা একদম ভুল কথা। বরং এতে আপনার লস বেশি হবে।আপনার কম্পিউটার মারাত্মক ভাবে আঘাত পেতে পারে। ধরুন কম্পিউটার একেবারে ধ্বংস হতে পারে। তাছাড়া কোন প্রোগ্রাম ঠিক ভাবে ব্যবহার করতে পারবেন না। তাই যেকোনো একটি ব্যবহার করা উত্তম। 
গোপনীয়তা 
কম্পিউটারের সকল চলমান প্রসেস পর্যবেক্ষণ করা একটি কার্যকরী এন্টিভাইরাস সফটওয়্যার এর কাজ। তবে কম্পিউটার এর চলমান এই সুরক্ষার ব্যবস্থার আড়ালে সফটওয়্যারটি ব্যবহার করা ডাটা অন্য কোম্পানির হাতে হাত বদল করেছে কিনা তাও নিশ্চিত করা জরুরি। এজন্য অ্যান্টিভাইরাস এর রিভিউ পড়ে ব্যবহার করাটা জরুরী অনেক বেশি জরুরী। সবকিছু ঠিকঠাক থাকলে তারপর আপনি ব্যবহার করতে পারবেন। 

সব না হয় বুঝলেন কিন্তু বেস্ট এন্টিভাইরাস সফটওয়্যার কোন গুলো। তা কিভাবে জানবেন। তো চলুন আমরা এখন তাই জেনে নেই;

Avast-free-antivirus
Avast-free-antivirus ফ্রি এন্টিভাইরাস। এন্টিভাইরাসের নাম শুনে সবার মাথায় হয়তো একটি নাম খেলা করে থাকে আর তা হলো এভাস্ট এন্টিভাইরাস সফটওয়্যার। বিভিন্ন টেস্টিং ল্যাবে পরিক্ষাতে এটি সেরা এন্টিভাইরাস সফটওয়্যার হিসেবে পরিচয় দিয়েছে। সাইবার ক্যাপচার হলো Avast-free-antivirus ভাইরাস এর অন্যতম প্রধান একটি ফিচার। যা পিসিতে নতুন ফাইল রান করার আগে সেদিকে স্ক্যান করে নেয়। তাতে কোন সমস্যা আছে কিনা তা পরীক্ষা করে নেয়।এন্টিভাইরাস সফটওয়্যার এর নাম।
 
এছাড়া Avast-free-antivirus ফ্রী এন্টিভাইরাস আরও রয়েছেন নেটওয়ার্ক সিকিউরিটি ইন্সপেক্টর, পাসওয়ার্ড ম্যানেজার সহ আরো অনেক ফিচার। পাশাপাশি Avast-free-antivirus সব ব্রাউজার এর ইউআরএল URL প্রটেকশন সুবিধা প্রদান করে থাকে। তবে Avast এ প্রাইভেসি সেটিংস আপনার কাছে কিছু টা কঠিন লাগতে পারে এবং পেইড কম্পোনেন্ট এর লিঙ্ক ভালো নাও লাগতে পারে। তবে কিছু দিক মোটামুটি ভাবে ছাড় দিলে বাকি দিক থেকে এটাই সেরা। আপনারা এটি ব্যবহার করতে পারেন। 

নিচে ডাউনলোড বক্সে বর্তমান আপডেট ফিচারটি আছে সেখান থেকে আপনি ডাউনলোড করে নিতে পারবেন। এদের ওয়েবসাইটে অ্যাফিলিয়েটের অপশন রয়েছে। অ্যাফিলিয়েট মার্কেটিং করে আপনি তাদের পণ্য সেল করে আপনি 25% কমিশন আর্নিং করতে পারবেন। ভাবছেন একটি সফটওয়্যার এর মধ্যে আবার আয়েরও সুযোগ। এটা এমন কোন বিষয় না এগুলো বেশ জনপ্রিয় সাইট এবং তাদের ইনকামও কিন্তু প্রচুর। তাই তারা আপনাদের জন্য এ সুযোগটি তৈরি করে দিয়েছে।

Bitdefender Antivirus
বিটডিফেন্ডার ফ্রী এন্টিভাইরাস। ফ্রি এন্টিভাইরাস হিসেবে বিটডিফেন্ডার ব্যাপকভাবে জনপ্রিয়।1997 সালে থেকে এখন পর্যন্ত বেশ সফল ভাবে কাজ করছেন এই বিট ডিফেন্ডার ফ্রী এন্টিভাইরা সফটওয়্যারটি। বিট ডিফেন্ডার এন্টিভাইরাস এর ফ্রী সংস্করণে কমার্শিয়াল বিট ডিফেন্ডার অ্যান্টিভাইরাস এর একই কোর এন্টিভাইরাস প্রযুক্তি অন্তর্ভুক্ত হয়েছে। মোটকথা বিনামূল্যে পেতে পারেন এই সর্বোচ্চ লেভেলের এই সুরক্ষা। 

ফিশিং সাইট এবং ক্ষতিকর ইউআরএল এর বিরুদ্ধে সুরক্ষার জন্য বিট ডিফেন্ডার পরীক্ষিত। সাধারণ ব্যবহার কারীদের জন্য বিট ডিফেন্ডার কনফিগার করা অনেক সহজ। তবে আপনি যদি অ্যাডভান্সড ইউজার হয়ে থাকে হয়তো আরো বেশি নিয়ন্ত্রণ দরকার হতে পারে। যা বিট ডিফেন্ডারে আপাতত নেই। আপনি সর্বোচ্চ সেবা পাবেন এটা নিশ্চিত ভাবে বলা যায়। এই সফটওয়্যার এর লিংক নিম্নে ডাউনলোড বক্সে আছে সেখানে লেটেস্ট ভার্সন ইন্সটল করতে পারবেন। এন্টি ভাইরাস এর কাজ কি।

Kaspersky Free Antivirus
ক্যাস্পারস্কাই ফ্রি অ্যান্টিভাইরাস অনেক ওয়েবসাইটে ক্যাস্পারস্কাই ফ্রি অ্যান্টিভাইরাস কে সেরা ফ্রি এন্টিভাইরাস এর সম্মান দেয়া হয়েছে। তো সকলের মধ্যেই অ্যাভাস্ট অ্যান্টিভাইরাস ইজ দ্যা বেস্ট। তাই অ্যাভাস্টকে বেষ্ট এন্টিভাইরাস বললেও ক্যাসপারস্কাই সফটওয়্যার কোন অংশেই কম নয়। এন্টিভাইরাস সফটওয়্যার বিনামূল্যে ফুল টাইম ম্যালওয়ার সুরক্ষা প্রদান করে। আরো রয়েছে রিয়েল-টাইম স্ক্যানিং ,অন্টিফিশিং এবং স্পাইওয়্যার প্রোটেকশন সহ নানান ধরনের সুবিধা। এই অ্যান্টিভাইরাস টি আপনার কাছে বেসিক লেভেলের অ্যান্টিভাইরাস বলে মনে হতে পারে।
 
তবে ব্যক্তিগতভাবে আমার জন্য এটি যথেষ্ট। একটি ইউজার ইন্টারফেস ব্যবহার অত্যন্ত সহজ এবং এদের ভাইরাস ধারণক্ষমতা অসাধারণ চাইলে আপনি এটি ব্যবহার করতে পারেন। আমি লিস্ট করে আপনাদের সামনে সফটওয়্যার গুলো তুলে ধরলে মনে রাখবেন সফটওয়্যার গুলো বেশ কার্যকর। তাই যেকোনো একটি সফটওয়্যার নিঃসন্দেহে ব্যবহার করতে পারেন কোন সমস্যা হবে না। সফটওয়ারটির লেটেস্ট ভার্শন আপনি নিচের ডাউনলোড বক্সে পেয়ে যাবেন। 
AVG Antivirus 
এভিজি এন্টিভাইরাস মূলত অ্যাভাস্ট অ্যান্টিভাইরাস এর মতই। একই অ্যান্টিভাইরাস সুরক্ষায় ইঞ্জিন দ্বারা তৈরি করা হয়েছে। তবে অ্যাভাস্ট এবার সাথে যে বোনাস ফিচার গুলো রয়েছে সেগুলো আপনি AVG Antivirus এ পাবেন না। ভাইরাস প্রোটেকশন সিস্টেম অপটিমাইজেশন টুল ম্যালওয়্যার স্কানার প্রকৃতি ব্যাসিক ফিচার এর পাশাপাশি মোটামুটি লেভেলের আন্টি ফিশিং প্রটেকশন প্রদান করতে পারে এভিজি এন্টিভাইরাস। আমিও আমার পিসিতে এই সফটওয়্যারটি ব্যবহার করি আপনিও করতে পারেন।

এটি খুব ভালো সেবা দিয়ে যাচ্ছে। তবে এর একটি সমস্যা আমার চোখে পড়েছে। আর তা হলো আপনি যখন আপনার পূরো পিসি স্ক্যান করবেন তখন আপনার কম্পিউটার কিছুতা স্লো হয়ে যেতে পারে অন্য কাজ বন্ধ করতে হতে পারে। তবে এর সেবা বেশ ভালো। AVG থেকে আপনি অ্যাফিলিয়েট এর মাধ্যমে আয় করতে পারবেন। এখানে অ্যাফিলিয়েট এর মাধ্যমে ২৫% কমিশন আয় করতে পারবেন। আপনাকে AVG এর প্রোডাক্ট সেল করতে হবে তবে আপনি সেখান থেকে আয় করতে পারবেন।আপনার সেল এর ৭৫ দিন মধ্যে আপনাকে পেমেন্ট করা হবে এখানে রয়েছে নানা ধরনের ক্যাম্পেইন, প্রোমোশন ইত্যাদি রয়েছে। এর জন্য আগে আপনাকে AVG এর অ্যাফিলিয়েট অপশনে গিয়ে সাইন আপ করতে হবে।

Avira Free Antivirus
অ্যান্টিভাইরাস ফ্রী এন্টিভাইরাস। ফ্রী এন্টিভাইরাস এর জগতে একটি জনপ্রিয় এন্টিভাইরাস এর নাম হচ্ছে আভিরা ফ্রী এন্টিভাইরাস। Avira Free Antivirus ফ্রী এন্টিভাইরাস কম্পিউটার থেকে যেকোন ধরনের ভাইরাস খুঁজে বের করে তা ব্লক করতে পারবে। এই সফটওয়্যার ব্যবহার করার ফলে অন্যান্য অ্যাভিরার প্রোডাক্ট ইন্সটল করতে পারবেন কম্পিউটার বা পিসিতে। অ্যাভিরা অ্যান্টিভাইরাসের স্ক্যানিং ইঞ্জিন তুলনামূলকভাবে একটু দুর্বল যা আপনাকে হয়রানি করতে পারে। তাছাড়া এন্টিভাইরাসটি করুন এবং ফায়ারফক্সে বাড়তি নিরাপত্তা প্রদান করে থাকে। এন্টিভাইরাস ব্যবহারের সুবিধা। 

এই এন্টিভাইরাস অতিমাত্রায় পপ আপ আপনাকে বিরক্ত করতে পারে। এক্ষেত্রে আপনারা সবাই হতাশ হবেন। তবে আশাকরি বেস্ট সেবাটি পাবেন এই এন্টিভাইরাস থেকে। 

এই এন্টিভাইরাস বা এদের সেবা আপনি যেমন ফ্রিতে ব্যবহার করতে পারছেন।তেমনি ভাবে ঠিক এখান থেকে অ্যাফিলিয়েট মার্কেট মাধ্যমে আপনি টাকা আয় করতে পারবেন। অ্যাফিলিয়েট এর মাধ্যমে এই সাইট থেকে আপনি 25% কমিশন পেতে পারেন। নিচে ডাউনলোড বক্সে ডাউনলোড করার লিংক দেয়া হলো আপনারা চাইলে সেখান থেকে লেটেস্ট ভার্সনের অ্যান্টিভাইরাস টি ডাউনলোড করতে পারেন। 

অন্যদের সাথে শেয়ার করুন

0 Comments

দয়া করে নীতিমালা মেনে মন্তব্য করুন ??

নটিফিকেশন ও নোটিশ এরিয়া