Technical Care BD https://www.technicalcarebd.com/2021/02/android-phone-screen-pinning-feature-can-save-your-smartphone-if-it-does-not-have-any-password.html

ফোন লক না থাকলেও কেউ খুলতে পারবে না আপনার স্মার্টফোন, আপনাকে শুধু এই সেটিংস চালু করতে হবে

স্মার্টফোন বা মোবাইল ফোন হচ্ছে প্রত্যেক মানুষের একটি ব্যক্তিগত জিনিস। আমরা এই স্মার্টফোন ব্যাবহার করে নানা রকম কাজ করে থাকি যেমন, কথা বলা, ছবি আদান-প্রদান, মেসেজ আদান-প্রদান ইত্যাদি নানা ধরনের কাজ করে থাকি। আর এইসব সকল বিষয় এর উপর চিন্তাভাবনা করে আমরা আমাদের নিজেদের সুরক্ষা বজায় রাখার জন্য আমরা ফোনের সিকিউরিটি ব্যাবহার করে থাকি। 
ফোন লক না থাকলেও কেউ খুলতে পারবে না আপনার স্মার্টফোন
আমরা আজকে এই আর্টিকেলে তুলে ধরবো কিভাবে আপনার ফোনের সুরক্ষা আরও সিকিউরিটি শক্তিশালী করা যায় এবং এটাও দেখবো যে কিভাবে ফোন লক সেট আপ না থাকলেও কেউ ফোন খুলতে পারবে না। চলুন তাহলে দেখে নেই সেই সেটিংস; 

আন্ড্রয়েড স্মার্টফোন Smartphone এ বর্তমানে অনেক ধরনের দারুন সকল ফিচার যুক্ত হচ্ছে। তার মধ্যে একটি হচ্ছে Pin the Screen বা Screen Pinning নামে একটি ফিচার ব্যাবহার করা হয়েছে। আপনি যদি আমাদের আজকের পোস্টে দেখানো কয়েকটি ধাপ ফলো করে থাকেন তাহলে আপনি খুব সহজে আপনার স্মার্টফোনের সকল ডাটা বা ইনফরমেশন বাহিরের অপরিচিত লোক এর হাত থেকে সুরক্ষিত রাখতে পারবেন। স্যামসাং Samsung Smartphone এ এই ফিচার এর নাম দেয়া হয়েছে Pin Windows। 

আমরা সাধারনত অপরিচিত বা অনন্যজন এর থেকে নিজের সুরক্ষার জন্য আমাদের স্মার্টফোন পাসওয়ার্ড বা সিকিউরিটি ব্যাবহার করি। পাসওয়ার্ড দেয়ার কারন হচ্ছে কেউ আপনার মোবাইলফোন আপনার অনুমতি ছাড়া ফোন খুলতে পারবে না। আবার এর মানে এই না যে আপনার ফোন লক আছে তাই বলে যে আপনার ফোন সুরক্ষিত আছে এমনটি ভাবার কোন কারন নেই। আবার আপনি যদি আপনার স্মার্টফোন যদি লক করা না করেন তাহলে আপনার ফোন সুরক্ষা নিশ্চিত করতে পারেন। আপনি ফোন লক না করলেও আপনার অনুমতি ছাড়া অনন্য কেউ ডাটা বা তথ্য দেখতে পারবে না। 

আমরা আজকের এই আর্টিকেলে তুলে যে বিষয়টি তুলে ধরবো তা হচ্ছে আপনার ফোন লক না থাকলেও বা ফোন আনলক করা থাকলে কেউ আপনার স্মার্টফোন আপনার অনুমতি ছাড়া ব্যাবহার করতে পারবে। হয়তো আপনি এই কথা শুনে অনেক বেশি অবাক হচ্ছেন হ্যাঁ এটি অবাক হওয়ার মতো হলেও এটাই সত্যি। এই কাজ করার জন্য আন্ড্রয়েডে একটি ফিচার রয়েছে যার নাম হচ্ছে Screen Pinning। কয়েকটি ধাপ অনুসরন করেই আপনি আপনার ডেটা গুলি অনন্যজন এর নজর থেকে রক্ষা করতে পারবেন। তো আর বেশি কথা না বাড়িয়ে চলুন দেখে নেই সেই ফিচার টি। 

Screen Pinning Feature | স্ক্রিন পিনিং ফিচার কি
Screen Pinning ফিচার বর্তমানে অনেক আন্ড্রয়েড স্মার্ট ফোনে ব্যাবহার করা হয়েছে। স্মার্টফোনের এই ফিচার ব্যাবহার করার ফলে আপনার স্মার্টফোন এর সকল সুরক্ষা ও সিকিউরিটি এবং আপনার ফোনের সকল ডেটার সকল সুরক্ষা নিশ্চিত করতে পারবেন। আপনি হয়তো কোন সময় আপনার স্মার্টফোন আনলক করে রাখেন এর পর আপনার ফোন আপনার পরিচিত কেউ নিয়ে হয়তো সে বিভিন্ন রকম এর ফাইল যেমন ছবি সহ নানা রকম গুরুপ্তপূর্ণ ফাইল দেখে নেই। 

আর এই পদ্ধতি থেকে নিজেকে সুরক্ষা প্রদান করার জন্য আপনাকে Screen Pinning Feature ব্যাবহার করতে হবে। এই পদ্ধতি ব্যাবহার করার ফলে আপনার স্মার্টফোনের যেকোন তথ্য এবং ফাইল আপনার অনুমতি ব্যাতিত দেখতে পারবে না। বর্তমানে এই ফিচারটি আপনি ব্যাবহার করতে পারবেন আন্ড্রয়েড ভার্সন ৫.০ এর উপরে। এই পদ্ধতি স্যামসাঙ মোবাইল ফোন Pin Windows নামে দেয়া থাকে। 

কিভাবে এই ফিচার চালু করবেন / কিভাবে Pin The Screen ফিচার চালু করবেন

১. ফোনের সুরক্ষা দেয়ার জন্য বা এই সেটিংস চালু করার জন্য আপনাকে প্রথমে আপনার ফোনের সেটিংসে (Settings) জেতে হবে 

২. তারপর সেটিংস থেকে আপনাকে যেতে হবে Security & Lock দেখতে পারবেন সেখানে ক্লিক করতে হবে 

৩. Security & Lock অপশনে ক্লিক করার পর আপনি একটু নিচে গিয়ে দেখতে পারবেন Screen Pinning 

৪. তারপর আপনাকে এই Screen Pinning অপশন চালু করে রাখতে হবে 

৫. এর পরে আপনি আপনার সুরক্ষার জন্য যে অ্যাপটি সিকিউর করে রাখতে চান। সেই অ্যাপ এর উপর চাপ দিয়ে একবার অন করুন আবার অফ করুন 

৬. তারপর আপনি Recent App অপশনে যান। আপনি যে অ্যাপস টি পিন করতে চান। সেই অ্যাপ এর উপর কিছুক্ষণ লং প্রেস করে ধরে রাখুন। লং প্রেস এর পর আপনার পিন অপশন বেঁছে নিন 

৭. এই কাজ করার পর আপনার ফোনে পিন করা অ্যাপটি ছাড়া অন্য কোন অ্যাপ আপনার স্মার্টফোনে খুলবে না 

আপনি যদি এই পিন ছড়াতে চান তাহলে আপনাকে হোম বাটন এবং ব্যাক বাটন এক সঙ্গে ক্লিক করতে হবে অথবা আপনার ফোনের লকসস্ক্রিন LockScreen এর পাসওয়ার্ড দিয়ে প্রবেশ করতে হবে। 

অন্যদের সাথে শেয়ার করুন

0 Comments

দয়া করে নীতিমালা মেনে মন্তব্য করুন ??

সর্বশেষ আপডেটেড অফার পেতে চান?

নটিফিকেশন ও নোটিশ এরিয়া